সুদৃঢ় সমাজ গঠনে প্রয়োজন দক্ষ নারী শক্তি

September 19, 2013

আমাদের অর্ধেক জনশক্তি নারী। এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, দক্ষ নারী শক্তি গড়ে তোলার মাধ্যমে সমাজ ব্যাবস্থার কাঠামো আরো সুদৃঢ় হতে পারে। যেকোনো পেশায় ভালো ডেলিভারির জন্য প্রয়োজন দক্ষতা। দক্ষতাই পারে আমাদের বেকারত্বমুক্ত একটি মানসম্মত সমাজ গঠনে সহয়তা করতে। সুদক্ষ নারী তার পরিবারকেও সহায়তা করতে পারে সুন্দর, সুস্থ এবং সচ্ছল পরিবার গড়ে তুলতে। এ সব’ই সম্ভব হবে তখন, যখন নারীরা তাদের জীবন গড়ে তোলার ব্যাপারে সচেতন হয়ে উঠবে। বিবাহিত নারীদের সংসার এর দায়িত্ব একসময় তাদের ক্যারিয়ার এর জন্য অন্তরায় হয়ে দাড়ায়। কিন্তু উন্নত বিশ্বে যেমন ইউএসএ, ইউকে, অস্ট্রেলিয়া, জার্মানি, জাপান, চায়না, কোরিয়া  ইত্যাদি  দেশের পরিবারগুলোর দিকে তাকালে আমরা কি দেখতে পাই? সমানভাবে, সমান তালে ছেলে মেয়ে সবাই একসাথে কাজ করছে। সামাজিক এবং পারিবারিক প্রেক্ষাপটে আমাদের পরিবার ব্যাবস্থা হয়ত তাদের মতো নয়। কিন্তু একটি দেশের সামগ্রিক ব্যাবস্থাপনার উপর সেদেশের উন্নয়ন নির্ভর করে। আমরা শুধু তাদের ফ্যাশন, কথাবার্তার স্টাইল, খাবারদাবার ইত্যাদি অভ্যেসগুলো অনুকরন করার চেষ্টা করি। কিন্তু তাদের পরিবারের লাইফ স্টাইল দেখলে দেখা যায় নারী-পুরুষ, সন্তান কিংবা অন্যান্য সকল সদস্যরা স্বনির্ভর এবং নিজেরদের কাজগুলো নিজেরাই করছে। ফলে সময়, অর্থ তো বাচছেই পাশাপাশি প্রত্যেকে সুস্বাস্থ্য একটি জীবন যাপন করার সুজোগ পাচ্ছে। আমাদের পরিবারেও এই অভ্যস্থতা গড়ে তোলা প্রয়োজন। ফলে পরিবারের মেয়েরা তাদের নিজের জন্য করার কিছু সময় বের করতে পারবে।

আমাদের দেশে আরও একটি গতানুগতিক মানসিকতা মেয়েরা পোষণ করে। মেয়েদের যখন কিছু করার প্রসঙ্গ আসে, হয় বুটিক, না হয় পারলার, অথবা রান্নাবান্না ইত্তাদি ব্যাবসায় আগ্রহি হতে দেখা যায়। হ্যা, এক দিক দিয়ে এগুলো মেয়েদের জন্য উপযোগী মনে হলেও বাস্তবিকভাবে বিষয়গুলো তত সহজ কিন্তু নয়। ব্যাবসার জন্য পুঁজি, কাজের অভিজ্ঞতা, কাচামালের জন্য পর্জাপ্ত ইনভেস্টমেন্ট, তৈরি করার পর বিক্রির ব্যাবস্থা, বিভিন্ন জায়গায় দৌড়াদৌড়ির পর কত টাকা প্রকৃতপক্ষে মাসে আয় করা সম্ভব তা আগে ভালো ভাবে ভেবে দেখা প্রয়োজন।
এর চেয়ে ঢের সহজ স্বল্প পুঁজিতে বাসায় বসে ফ্রিলান্সিং করে আয় করা। আমাদের দেশে মেয়েদের টেকনোলোজিতে বেশী বেশী এগিয়ে আসা প্রয়োজন। আইটিতে কাজের প্রচুর সুযোগ রয়েছে এবং আমি মনে করি ক্যারিয়ারের দিক দিয়ে এই সেক্টরটি যেমন সন্মাঞ্জনক তেমন নিরাপদ। নিরাপদ আয়ের জন্য আইটি প্রফেশন দিতে পারে আত্মনির্ভরশীল এবং সচ্ছল হয়ে ওঠার সঠিক দিক নির্দেশনা।

বাংলাদেশের মেয়েদের ক্যারিয়ার ভাবনা টা আসলে কিরকম বা কেমন হওয়া উচিৎ? কিভাবে ক্যারিয়ার পাথ ঠিক করা যেতে পারে? কি কি হতে পারে মেয়েদের সঠিক ক্যারিয়ার  কিংবা  কিভাবে এর সঠিক দিক নির্দেশনা ঠিক করা যেতে পারে? এই বিষয়গুলো নিয়ে আমাদের বেশি বেশি কথা বলা, শেয়ার করা এবং উপদেশ নেয়া প্রয়োজন। এ জন্য পরিবারগুলোকে সচেতন হতে হবে এবং পরস্পরের সাথে আলোচনা করা প্রয়োজন। সঠিক ক্যারিয়ার নির্বাচন হোক সঠিক সময়ে, দক্ষ নারীশক্তি গড়ে উঠুক ঘরে ঘরে।

– নিলীম আহসান, ২০১৩